প্রেসার কুকারে রান্নার অনেক সুবিধা রয়েছে। এটি একটি বদ্ধ পাত্র যাতে বাষ্পের বহির্গমন নিয়ন্ত্রণ করা হয়। এর ফলে পাত্রের ভিতরে চাপ বৃদ্ধি পায়, যা তরলের স্ফুটনাঙ্ক বাড়িয়ে দেয়। স্বাভাবিকভাবে, পানির স্ফুটনাঙ্ক ১০০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। প্রেসার কুকারে, পানির স্ফুটনাঙ্ক ১২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার বেশি পর্যন্ত পৌঁছাতে পারে। এটি খাবারের অভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে, যার ফলে রান্নার সময় কমে যায়।

প্রেসার কুকারে রান্নার সুবিধাগুলির মধ্যে রয়েছে:

  • দ্রুত রান্না: প্রেসার কুকারে রান্না করা খাবার সাধারণভাবে সাধারণ পাত্রে রান্না করা খাবারের তুলনায় অনেক দ্রুত রান্না হয়। এটি সময় এবং শক্তি সাশ্রয় করে। উদাহরণস্বরূপ, একটি প্রেসার কুকারে মুরগির মাংস রান্না করতে প্রায় ১৫-২০ মিনিট সময় লাগে, যেখানে একটি সাধারণ পাত্রে রান্না করতে প্রায় ৩০-৪৫ মিনিট সময় লাগে।
  • পুষ্টিগুণ ধরে রাখা: প্রেসার কুকারে রান্না করা খাবারের পুষ্টিগুণ সাধারণভাবে সাধারণ পাত্রে রান্না করা খাবারের তুলনায় ভালো থাকে। এটি কারণ প্রেসার কুকারের উচ্চ তাপমাত্রা খাবারের প্রোটিন এবং ভিটামিনগুলিকে নষ্ট করতে পারে না।
  • খাবারের স্বাদ উন্নত করা: প্রেসার কুকারে রান্না করা খাবারের স্বাদ সাধারণভাবে সাধারণ পাত্রে রান্না করা খাবারের তুলনায় ভালো থাকে। এটি কারণ প্রেসার কুকারের উচ্চ তাপমাত্রা খাবারের স্বাদযুক্ত অ্যামিনো অ্যাসিড এবং ফ্লেভার কম্পোনেন্টগুলিকে আরও ভালভাবে প্রকাশ করতে সাহায্য করে।
  • শক্তি সাশ্রয়ী: প্রেসার কুকারে রান্না করা খাবার সাধারণভাবে সাধারণ পাত্রে রান্না করা খাবারের তুলনায় কম শক্তি ব্যবহার করে। এটি কারণ প্রেসার কুকারের উচ্চ তাপমাত্রা খাবার রান্না করতে কম সময় নেয়।

তবে, প্রেসার কুকার ব্যবহার করার সময় কিছু সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত। প্রেসার কুকারের ছিদ্র বন্ধ না থাকলে বাষ্প বের হতে পারে, যা পোড়ার কারণ হতে পারে। এছাড়াও, প্রেসার কুকারের ভিতরে খাবার বেশি হলে বাষ্পের চাপ বেড়ে যেতে পারে, যা পাত্রের ফেটে যাওয়ার কারণ হতে পারে।

এখানে কিছু নির্দিষ্ট উদাহরণ রয়েছে যেখানে প্রেসার কুকারে রান্না করা সহায়ক হতে পারে:

  • দ্রুত খাবার তৈরি করা: যদি আপনার কাছে রান্নার জন্য খুব বেশি সময় না থাকে, তাহলে প্রেসার কুকারে রান্না করা একটি দুর্দান্ত বিকল্প। আপনি কয়েক মিনিটের মধ্যে একটি সম্পূর্ণ খাবার রান্না করতে পারেন।
  • পুষ্টিকর খাবার তৈরি করা: প্রেসার কুকারে রান্না করা খাবারের পুষ্টিগুণ ভালো থাকে কারণ এটি খাবারের প্রোটিন এবং ভিটামিনগুলিকে নষ্ট করতে পারে না।
  • ভিন্ন ধরণের খাবার তৈরি করা: প্রেসার কুকারে অনেক ধরণের খাবার রান্না করা যায়, যেমন মাংস, সবজি, ভাত এবং ডাল। এটি আপনাকে আপনার খাদ্যকে বৈচিত্র্যময় করতে সাহায্য করতে পারে।