Xinc বি ট্যাবলেট/সিরাফ দস্তা ঘাটতি, মাইগ্রেন, আই রোগ, খালাস, অপুষ্টি শিশুদের মধ্যে ডায়রিয়া, উইলসন ডিজিজ, অস্টিওপোরোসিস এবং অন্যান্য অবস্থার চিকিৎসার জন্য ব্যবহার হয়।

Xinc বি নিম্নলিখিত সক্রিয় উপাদান রয়েছে: Elemental Zinc and Vitamin B। tablet ফর্ম পাওয়া যায়।

xinc b এর কাজ কি?

জিঙ্ক ট্যাবলেট বিভিন্ন বায়োলজিক্যাল ফাংশন যেমন – রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, শরীরে কোন ক্ষত থাকলে সেটা সারাতে সাহায্য করে,বিশেষ করে বাড়ন্ত বয়সে শারীরিক বৃদ্ধি এবং মানসিক বিকাশ ঘটায়। জিঙ্ক গর্ভবস্থায় ,শৈশব এবং কৈশোরে স্বাভাবিক বৃদ্ধি এবং গঠনে সহায়তা করে।

এছাড়া জিঙ্ক এর কিছু এন্টি অক্সিডেন্ট ক্ষমতাও রয়েছে। প্রাপ্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে জিঙ্ক এর অভাবে ক্ষুদামন্দা দেখা দিতে পারে, স্বাদ বা ঘ্রান গ্রহনের ক্ষমতা কমে যেতে পারে। বিষন্নতা , দুর্বল প্রজনন ক্ষমতা, ঘন ঘন অসুখে পড়া ,ডায়ারিয়া,হাত পা শির শির করা, দিন দিন ওজন কমে যাওয়ার লক্ষন জিঙ্ক এর অভাবে দেখা দিতে পারে।

জিংক বি ট্যাবলেট এর কাজ কি?

জিংক বি ট্যাবলেট আমাদের শরীরে জিংক ও ভিটামিন বি কমপ্লেক্সের অভাব দূর করে থাকে। অনেক সময় বাচ্চাদের উচ্চতা বৃদ্ধিতে এই জিংক বি ট্যাবলেট বা সিরাপ ব্যবহার করা হয়। তবে যে কোন বয়সের মানুষ জিংক বি ট্যাবলেট ট্যাবলেট ও সিরাপ উভয় খেতে পারবেন। জিংক বি ট্যাবলেট এর কাজ ও উপকারিতার মধ্যে কোন পার্থক্য নয়। তাই জিংক বি ট্যাবলেট এর উপকারিতা সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নিন যেটা সম্পর্কে আমরা উপরে আলোচনা করেছি।

জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার নিয়ম

তাই শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে জিঙ্ক বি ট্যাবলেট সেবন করতে পারেন। আসুন এবার জিঙ্ক বি খাবার সঠিক নিয়ম জানা যাক।যারা প্রাপ্ত বয়স্ক আছেন এবং ওজন কমপক্ষে ৩০ কেজির উপরে তাদের ১ টি করে ট্যাবলেট দিনে ২ থেকে ৩ বার খাবার পরামর্শ একজন ডাক্তার দিয়ে থাকেন।

জিংক বি ট্যাবলেট এর দাম কত?

জিংক বি ৩০টি ট্যাবলেট এর দাম ১০৫ টাকা মাত্র। এটি এস কে এফ ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটেড কোম্পানির একটি ওষুধ।

সতর্কতা –

আর যাদের জিঙ্ক এবং ভিটামিন বি কমপ্লেক্স এর প্রতি সংবেদনশীল রয়েছে তাদের ক্ষেতে এই জিঙ্ক বি ট্যাবলেট প্রতি নির্দেশিত।

এছাড়া টেট্রাসাইক্লিন এর গ্রুপ ঔষধ সেবন করলে সাথে এই জিঙ্ক বি ঔষধ টি সেবন করা যাবে না।

জিঙ্ক বি ঔষধ টি খুবি সূ সহনীয়। এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই বললেই চলে। তবে কারো কারো ,সবার না, বমি বমি ভাব, বমি, ডায়রিয়া, পাকস্থলির সমস্যা হতে পারে। এগুলো সাময়িক, মারাত্মক নয়। তবে কোন সমস্যা তীব্র মনে করলে একজন ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

আর গর্ভস্থায় এবং স্তনদান কালেও এই জিঙ্ক বি ঔষধ টি খাওয়া যাবে।

আপনার শরীর কে আরও রোগ মুক্ত ও ফিট রাখতে জিঙ্ক খেতে পারেন।তবে অবশ্যই একজন ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে। কারন তিনি আপনাকে আপনার শারীরিক কন্ডিশন দেখে কি মাত্রায় আপনার শরীরে জিঙ্ক প্রয়োজন তার সঠিক ডোজ নির্ণয় করে দিতে পারবেন।

Categorized in: