বাংলায় মাইগ্রেট অর্থ হল অভিবাসন,স্থানান্তর। কোনও ব্যক্তি, প্রাণী বা উদ্ভিদ এক স্থান থেকে অন্য স্থানে চলে যাওয়াকে মাইগ্রেশন বলা হয়। মাইগ্রেশনের বিভিন্ন কারণ হতে পারে, যেমন অর্থনৈতিক সুযোগ, রাজনৈতিক অস্থিরতা, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ইত্যাদি।

মাইগ্রেশনের বিভিন্ন প্রকারভেদ রয়েছে। যেমন:

  • অন্তর্দেশীয় মাইগ্রেশন: এক দেশের ভিতরে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে চলে যাওয়াকে অন্তর্দেশীয় মাইগ্রেশন বলা হয়।
  • আন্তর্জাতিক মাইগ্রেশন: এক দেশ থেকে অন্য দেশে চলে যাওয়াকে আন্তর্জাতিক মাইগ্রেশন বলা হয়।
  • ঋতুভিত্তিক মাইগ্রেশন: নির্দিষ্ট ঋতুতে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে চলে যাওয়াকে ঋতুভিত্তিক মাইগ্রেশন বলা হয়।
  • স্থায়ী মাইগ্রেশন: স্থায়ীভাবে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে চলে যাওয়াকে স্থায়ী মাইগ্রেশন বলা হয়।
  • অস্থায়ী মাইগ্রেশন: অস্থায়ীভাবে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে চলে যাওয়াকে অস্থায়ী মাইগ্রেশন বলা হয়।

মাইগ্রেশন একটি জটিল সামাজিক ঘটনা। এটি বিশ্বের অর্থনীতি, রাজনীতি এবং সংস্কৃতিতে গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলে।

বাংলাদেশে মাইগ্রেশন একটি বহুল আলোচিত বিষয়। বাংলাদেশে বিভিন্ন কারণে মানুষ মাইগ্রেট করে। যেমন:

  • অর্থনৈতিক কারণে: উন্নত জীবনযাপনের জন্য অনেক মানুষ অর্থনৈতিক কারণে মাইগ্রেট করে।
  • রাজনৈতিক কারণে: রাজনৈতিক অস্থিরতা বা নির্যাতনের কারণে অনেক মানুষ রাজনৈতিক কারণে মাইগ্রেট করে।
  • প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে: প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে অনেক মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়ে মাইগ্রেট করে।

বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর লক্ষ লক্ষ মানুষ মাইগ্রেট করে। এদের মধ্যে অনেকেই বিদেশে বসবাস শুরু করে।