বাংলা ভাষায় “নাশকতা” শব্দের অর্থ হলো ধ্বংসাত্মক কাজ। এর আরেকটি অর্থ হলো রাষ্ট্র বা সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক কর্মকাণ্ড। নাশকতা বলতে সাধারণত এমন কোনও কাজকে বোঝায় যাতে করে কোনও বস্তু বা ব্যবস্থার ক্ষতি বা ধ্বংস হয়।

নাশকতার বিভিন্ন ধরন রয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো:

  • অগ্নিসংযোগ: অগ্নিসংযোগের মাধ্যমে কোনও ভবন, স্থাপনা, যানবাহন বা অন্য কোনও বস্তুতে আগুন লাগানো।
  • বিস্ফোরণ: বিস্ফোরক দ্রব্য ব্যবহার করে কোনও বস্তু বা ব্যবস্থার ক্ষতিসাধন করা।
  • হামলা: কোনও ব্যক্তি, দল বা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে শারীরিক বা মানসিক আক্রমণ করা।
  • ষড়যন্ত্র: রাষ্ট্র বা সরকারের বিরুদ্ধে গোপনে চক্রান্ত করা।

নাশকতা একটি গুরুতর অপরাধ। এতে করে মানুষের প্রাণহানি, সম্পত্তির ক্ষতি এবং সামাজিক অস্থিরতা সৃষ্টি হতে পারে।

বাংলাদেশে নাশকতা একটি বহুল আলোচিত বিষয়। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও গোষ্ঠী তাদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিল করার জন্য নাশকতার আশ্রয় নেয়। এছাড়াও, ধর্মীয় উগ্রবাদী গোষ্ঠী ও সন্ত্রাসীরা নাশকতার মাধ্যমে তাদের দাবি আদায়ের চেষ্টা করে।

নাশকতা প্রতিরোধের জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সরকারের পাশাপাশি সমাজের সকল স্তরের মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধি জরুরি।