মানব জীবনকে শুশৃঙ্খল করতে যে শিক্ষার প্রয়োজন। তাই সামাজিক ও নৈতিক শিক্ষা।

মানুষের জ্ঞান ও চিত্তের উৎকর্ষের জন্য,মানব সভ্যতা ও সংস্কৃতির বিকাশের জন্য,চরিত্র গঠন ও মানবীয় মূল্যবোধের জন্য,সর্বোপরি মানবসম্পদ উন্নয়নের জন্য শিক্ষা হচ্ছে প্রধান নিয়ামক। শিক্ষা মানুষের চিন্তা কে সুপ্রতিষ্ঠিত ও জ্ঞানী করে। 

সামাজিক শিক্ষাঃ

সামাজিক শিক্ষা বুঝায় সমাজে বসবাসকারী মানুষের দ্বারা জ্ঞাতসারে বা অজ্ঞাতে মানবাচরণের পরিবর্তন সাধন।

নৈতিক শিক্ষাঃ

নৈতিক শিক্ষা  হলো নীতি সম্পর্কিত শিক্ষা।মানুষ তার পরিবার,সমাজ, রাষ্ট্র ও ধর্মের ওপর ভিত্তি করে সুনির্দিষ্ট কিছু নিয়ম নীতি খুব সচেতনভাবে মেনে চলে।

সমাজ বা রাষ্ট্র আরোপিত এই সব নিয়ম-নীতি ও আচারণবিধি মানুষের জীপন-যাপনকে প্রভাবিত করে। এই নিয়মগুলো মেনে চলার প্রবণতা,মানসিকতা, নীতির চর্চাই হলো নৈতিকতা।