নিষ্ক্রিয় শব্দের বেশ কয়েকটি অর্থ রয়েছে, যার মধ্যে কয়েকটি হলো:

ক্রিয়াহীন: যে জিনিসটি কাজ করে না বা কর্মক্ষম নয়, তাকে নিষ্ক্রিয় বলা হয়। উদাহরণস্বরূপ, একটি ভাঙা ঘড়ি নিষ্ক্রিয়।

অলস: যে ব্যক্তি কাজ করতে চায় না বা কর্মঠ নয়, তাকে নিষ্ক্রিয় বলা হয়। উদাহরণস্বরূপ, একটি অলস শিক্ষার্থী পড়াশোনায় মনোযোগ দেয় না।

নিষ্কর্মা: যে ব্যক্তি কোন কাজ বা কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করে না, তাকে নিষ্ক্রিয় বলা হয়। উদাহরণস্বরূপ, একজন নিষ্ক্রিয় নাগরিক রাজনৈতিক বিষয়ে আগ্রহী নয়।

নিষ্ক্রিয় অবস্থা: যে অবস্থায় কোন পরিবর্তন বা গতিবিধি নেই, তাকে নিষ্ক্রিয় অবস্থা বলা হয়। উদাহরণস্বরূপ, একটি নিষ্ক্রিয় আগ্নেয়গিরি বিস্ফোরিত হয় না।

নিষ্ক্রিয়তা: ক্রিয়াহীনতা, অলসতা, বা নিষ্কর্মতার অবস্থা।

কোন প্রসঙ্গে “নিষ্ক্রিয়” শব্দটি ব্যবহার করা হচ্ছে তার উপর নির্ভর করে এর অর্থ নির্ধারণ করা হয়।

উদাহরণস্বরূপ:

  • “এই ওষুধটি ব্যথা কমাতে সাহায্য করে এবং প্রদাহ নিষ্ক্রিয় করে।” (এখানে “নিষ্ক্রিয়” শব্দের অর্থ হলো “কমিয়ে দেওয়া” বা “হ্রাস করা”)
  • “সরকার নিষ্ক্রিয় হয়ে বসে থাকতে পারে না, তাদের অবশ্যই এই সমস্যার সমাধান করতে হবে।” (এখানে “নিষ্ক্রিয়” শব্দের অর্থ হলো “কোন পদক্ষেপ না নেওয়া”)
  • “নিষ্ক্রিয় জীবনযাপন করলে অনেক স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দিতে পারে।” (এখানে “নিষ্ক্রিয়” শব্দের অর্থ হলো “কোন শারীরিক কার্যকলাপ না করা”)

আপনি যদি নির্দিষ্ট কোন প্রসঙ্গে “নিষ্ক্রিয়” শব্দের অর্থ জানতে চান, তাহলে আমাকে আরও তথ্য দিতে পারেন।

Categorized in: