What is Platelets meaning in Bengali?

Platelets

প্লাটেলেটস কে বাংলায় বলা হয় অণুচক্রিকা।ইহা রক্তে থাকা অতিক্ষুদ্র অনিয়মিত আকারের কোষ। সহজ ভাষায় বলতে হলে রক্তের ক্ষুদ্রতম কোষকে অণুচক্রিকা বলে।

শরীরে কি পরিমাণ থাকা উচিত:

স্বাস্থ্যবানদের জন্য সাধারণ পরিসীমা প্রতি ঘন মিলিমিটারে ১৫০,০০০ থেকে ৪৫০,০০০ টি অণুচক্রিকা বা ১৫০-৪৫০x১০^৯ প্রতি লিটার প্রবীণদের ক্ষেত্রে।

মাপার পদ্দতি:

প্লাটেলেটসের ঘনত্ব হিমোসাইটোমিটার ব্যবহার করে মাপা হয় বা কুল্টার কাউন্টারের মতো বৈদ্যুতিক প্রতিবন্ধকতা ব্যবহার করে একটি স্বয়ংক্রিয় অণুচক্রিকা বিশ্লেষকে রক্ত রেখে মাপা যায়।

প্লাটেলেটসের কার্যকলাপ:

প্লাটেলেটস বৃদ্ধির প্রাকৃতিক উৎস হিসাবে কাজ করে। স্তন্যপায়ীদের দেহে এরা সংবাহিত হয় এবং রক্ততঞ্চনে অর্থাৎ ক্ষতস্থানের রক্ত জমাট বাঁধায় নিয়োজিত থাকে। অণুচক্রিকা সূতার আঁশের ন্যায় রক্তকে জমাট বাঁধায় সাহায্য করে। অণুচক্রিকা বিভিন্ন বৃদ্ধিবর্ধক উপাদান উৎপন্ন করে যেমন প্লেটলেট-ডেপরাইভড্‌ গ্রোথ ফ্যাক্টর (পিডিজিএফ), এ পটেন্ট কেমোট্যাক্টিক এজেন্ট এবং টিজিএফ বেটা যা অতিরিক্ত কোষীয় মাতৃকাকে তরান্বিত করে। উভয় বৃদ্ধিবর্ধক উপাদান সংযোজক কলার পুনর্গঠন এবং পুনঃনির্মানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

মাত্রা কমে গেলে কি সমস্যা দেই:

প্লাটেলেটসের সংখ্যা খুব কমে গেলে হতে পারে মারাত্মক রক্তক্ষরণ । আবার সংখ্যা খুব বৃদ্ধি হলে তা রক্তনালিকাগুলোকে বাঁধা দিয়ে থ্রম্বোসিস ঘটাতে পারে এবং এমন পরিস্থিতিতে স্ট্রোক, মাইওকার্ডিয়াল ইনফ্র্যাকশন, ফুসফুসীয় ধমনীরোধ এবং রক্তনালিকা বন্ধ হয়ে যেতে পারে।
প্লাটেলেটসের অস্বাভাবিকতা বা রোগকে থ্রম্বোসাইটোপ্যাথি বলা হয। যা হতে পারে প্লাটেলেটস কমে গেলে (থ্রম্বোসাইটোপেনিয়া), অণুচক্রিকার স্বাভাবিক কাজ বাধাগ্রস্ত হলে (থ্রম্বোস্টেনিয়া) কিংবা অণুচক্রিকার সংখ্যা বেড়ে গেলে (থ্রম্বোসাইটোসিস)।
এছাড়া বেশকিছু রোগের কারণেও অণুচক্রিকা কমতে পারে যেমন ডেঙ্গু বা হেপারিন-ইনডিউজড থ্রম্বোসাইটোপেনিয়া

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × two =